খুঁজুন
শুক্রবার, ১২ এপ্রিল, ২০২৪, ২৯ চৈত্র, ১৪৩০

যারা ১৫ আগস্ট, ২১ আগস্ট ঘটায়, মানুষ পোড়ায় তাদের বর্জন ও প্রতিহত করুন : তথ্যমন্ত্রী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০২৩, ৭:১৪ অপরাহ্ণ
যারা ১৫ আগস্ট, ২১ আগস্ট ঘটায়, মানুষ পোড়ায় তাদের বর্জন ও প্রতিহত করুন : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘যারা ১৫ আগস্ট, ২১ আগস্ট ঘটায়, মানুষ পোড়ায়, পবিত্র কোরআন শরিফ পোড়ায়, যারা হত্যা-ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করে, দেশবাসীর প্রতি আহ্বান, তাদেরকে বর্জন করুন, প্রতিহত করুন।’ তিনি বলেছেন, ‘বিএনপি হত্যার রাজনীতি করে।

হত্যার রাজনীতির মাধ্যমেই বিএনপি উত্থান, পথ চলা, ষড়যন্ত্র এবং তারা হত্যার রাজনীতিতেই বিশ্বাস করে। আজকে তারা লম্বা লম্বা কথা বলে যাদের এ দেশে রাজনীতি করার অধিকার থাকা উচিত না।’ রোববার দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় হত্যাকারী ও পরিকল্পনাকারীদের দ্রুত বিচারের রায় কার্যকর করার দাবিতে আলোচনা সভা’য় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ সব কথা বলেন। ২১ আগস্ট আহত-নিহত পরিবারের কেন্দ্রীয় সংগঠন ‘গণতন্ত্র যোদ্ধা ২১ আগস্ট বাংলাদেশ’ এ সভার আয়োজন করে।

‘২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা বিএনপি সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় অর্থায়নে তারেক জিয়ার পরিচালনায় খালেদা জিয়ার জ্ঞাতসারেই পরিচালনা করা হয়েছিলো’ উল্লেখ করে সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, ‘১৫ আগস্টের হত্যাকান্ড ঘটিয়েছিলো মুশতাক এবং জিয়া আর ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা ঘটিয়েছে তারেক জিয়া এবং খালেদা জিয়া। গ্রেনেড হামলায় তৎকালীন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেত্রী দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আহত হয়েছেন, তার দলের ২২ জন নেতা-কর্মী নিহত, পাঁচশ’রও বেশি নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। সমগ্র পৃথিবী নিন্দা ও ধিক্কার জানিয়েছে। কিন্তু সংসদে একটি শোক প্রস্তাব আনতে বা কোনো আলোচনাও করতে দেওয়া হয়নি। বরং হাস্যরস করা হয়েছে, বলা হয়েছে যে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনাই না কি ভ্যানিটি ব্যাগে করে গ্রেনেড নিয়ে গেছে। অর্থাৎ ওদের কথা অনুযায়ী আমরা সবাই আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলাম।’ হাছান বলেন, ‘সে দিন বিদেশি সন্ত্রাসীরাও ঢাকায় এসেছিলো, এ হামলা পরিচালনার সাথে তাদেরকেও যুক্ত করা হয়েছিলো। তারা যখন শুনেছে জননেত্রী শেখ হাসিনা মারা যাননি তখন চলে গেছে। হামলায় ব্যবহৃত গ্রেনেড জেলখানার মধ্যে পাওয়া গেছে।

রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়া সামরিক বাহিনীর গ্রেনেড জেলখানার অপরাধীদের হাতে যাওয়া সম্ভব নয়। কয়েকজন হামলাকারীকে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া হলো। এইভাবে সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় তারেক জিয়ার নেতৃত্বে খালেদা জিয়ার জ্ঞাতসারে ২১ আগস্টে গ্রেনেড হামলা ঘটানো হয়।’ ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলার অন্যতম সাক্ষী হাছান মাহমুদ বলেন, ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা সেদিন ভাগ্যক্রমে স্রষ্টার কৃপায় বেঁচে গেছেন। বুলেটপ্রুফ গাড়ি যদি না থাকতো, বাঁচার কোনো উপায় ছিলো না। আমার শরীরে চল্লিশ থেকে পঁয়তাল্লিশটা স্প্রিন্টার আছে, অনেকের পাঁচশ’-ছয়শ’ আছে। ফেরদৌসী, কাজল আরো অনেকেই আছেন যারা পাঁচশ’-ছয়শ’ স্প্রিন্টার নিয়ে বেঁচে আছে, পঙ্গু হয়ে গেছে এবং এতো ভয়াবহ হামলা ও হত্যাকান্ডের বিচার তো হয়ইনি বরং বিচারপতি জয়নুল আবেদীনকে দিয়ে একটি তদন্ত কমিশন গঠন করা হয়েছিলো যে কমিশন গাঁজাখুরি রিপোর্ট দিলো যে ইসরাইলের ‘মোসাদ’ এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

বিচারের নামে ‘জজ মিয়া’ নাটক সাজিয়ে তখন জাতিকে বোকা বানানোর চেষ্টা করা হয়েছে।’ তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘হামলার পরে আমাদের নেতাকর্মীরা আহতদের উদ্ধারে, নিহতদের সরিয়ে নেওয়ার জন্য এলে তাদের ওপর টিয়ারসেল নিক্ষেপ করা হয়। মামলার আলামত নষ্ট করার জন্য হামলার স্থান পানি দিয়ে ধুয়ে দেওয়া হয়। সেনাবাহিনীর একজন অফিসার মেজর শামস আলামত হিসেবে একটি গ্রেনেড রেখে দেওয়ায় তাকে সেনাবাহিনী থেকে সাসপেন্ড করা হয়। সে এক সময় ছাত্রলীগ করতো, সে এখন রাজউকের বোর্ড মেম্বার।

এগুলোই তো প্রমাণ যে খালেদা জিয়া এবং তারেক জিয়া মিলে এই ঘটনা ঘটিয়েছে।’ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, ‘এই দেশের মালিক এই দেশের মানুষ। এই দেশের ক্ষমতার মালিক এই দেশের মানুষ। এখানে কে ক্ষমতায় থাকবে, কে ক্ষমতায় থাকবে না সেই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে এই দেশের মানুষ, অন্য কোনো দেশ নয়, অন্য কেউ নয়। আমরা জনগণের শক্তিতে বিশ্বাস করি। আওয়ামী লীগ এমন একটা দল যে, আঘাত পেলে সংগঠিত হয়, ঘুরে দাঁড়ায়, ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার পর তারা ভেবেছিলো আওয়ামী লীগ আর আগের মতো দাঁড়াতে পারবে না, কিন্তু আওয়ামী লীগ ঘুরে দাঁড়িয়েছে।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনার ধমনী-শিরায় বঙ্গবন্ধুর রক্তস্রোত প্রবাহমান, যে রক্ত আপোষ জানে না, পরাভব মানে না। আমরা ভেঙ্গে পড়বো কিন্তু কোনদিন মচকাবো না, প্রয়োজনে মৃত্যুকে বরণ করবো। জীবনকে হাতের মুঠোয় নিয়ে রাজনীতির মাঠে নেমেছি, মৃত্যুকে আলিঙ্গণ করবো, পরাজিত হবো না কোনদিন।’

‘গণতন্ত্র যোদ্ধা ২১ আগস্ট বাংলাদেশ’ সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসান নাজিমের সঞ্চালনায় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি মোল্লা আবু কাওসার, অ্যাড. কাজী শাহানারা ইয়াসমিন প্রমুখ সভায় বক্তব্য দেন।

বীরগঞ্জে ১০৫ টি পরিবারে ঈদ উপলক্ষে মাংস বিতরণ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২৪, ১২:৫৬ অপরাহ্ণ
বীরগঞ্জে ১০৫ টি পরিবারে ঈদ উপলক্ষে মাংস বিতরণ

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলায় ২নং পলাশবাড়ী ইউনিয়নে নন্দাইগাঁও মুসলিম যুব সমাজের উদ্যোগে আজ বৃহস্পতিবার (১০) এপ্রিল বিকেল ৩ টা থেকে ৪ টা পর্যন্ত দরিদ্র ও অসহায় ১০৫ টি পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

ঈদ সামগ্রী হিসেবে ছিল মাংস। ঈদ সামগ্রী বিতরণ করার সময় উপস্থিত ছিলেন নন্দাইগাঁও মুসলিম যুব সমাজের সভাপতি মাহমুদুল হাসান শাহ্,সহ-সভাপতি জাহাঈীর আলম, সাধারন সম্পাদক খাদেমুল ইসলাম,কার্যকরী সদস্য ইমাম হাসান মাহিন শাহ্, প্রমুখ।

নন্দাইগাঁও মুসলিম যুব সমাজের সভাপতি মাহমুদুল শাহ্ বলেন, ‘ধনী ও গরিবদের ঈদ আনন্দে কোনো পার্থক্য নেই। তাই আনন্দ ভাগাভাগি করতে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও আমাদের এ সামান্য প্রচেষ্টা’।

আমাদের এই আয়োজনে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের সবার জন্য দোয়া রইলো।

উত্তরের কন্ঠ /এ,এস

গাজায় ধ্বংসপ্রাপ্ত মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় ফিলিস্তিনিদের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: বুধবার, ১০ এপ্রিল, ২০২৪, ১২:৪৪ অপরাহ্ণ
গাজায় ধ্বংসপ্রাপ্ত মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় ফিলিস্তিনিদের

দীর্ঘ একমাস সিয়াম সাধনার পর বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উদযাপিত হচ্ছে মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। বরাবরের মতো এবারও বিশ্বজুড়ে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও উৎসবমুখর পরিবেশে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের প্রধান এই ধর্মীয় উৎসব পালিত হচ্ছে।

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের মতো ফিলিস্তিনের গাজা ভূখণ্ডেও পালিত হচ্ছে ঈদুল ফিতর। তবে সেখানে বাকি বিশ্বের মতো নেই ঈদের আনন্দ, আছে ধ্বংসযজ্ঞ, মানুষের মৃত্যু, আর আছে প্রিয়জন হারানোর বেদনা।

এর মধ্যেই ঈদ উদযাপন করছেন ফিলিস্তিনিরা। এমনকি গাজায় ধ্বংসপ্রাপ্ত মসজিদেই ঈদের নামাজ আদায় করেছেন তারা। বুধবার (১০ এপ্রিল) এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, ফিলিস্তিনিরা বুধবার গাজা উপত্যকার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফাহ শহরের আল-ফারুক মসজিদের ধ্বংসাবশেষে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছে। মসজিদের ধ্বংসাবশেষে ফিলিস্তিনিদের ঈদের নামাজের ছবিও সামনে এসেছে।

সেখানে বুধবার সকালে রাফাহ শহরের ওই মসজিদের ধ্বংসাবশেষের পাশেই ফিলিস্তিনিদের ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করতে দেখা যায়।

এদিকে গাজার রাফাহতে ঈদের দিনও ইসরায়েলি ড্রোন সেখানকার আকাশে চক্কর দিচ্ছে। আল জাজিরা বলছে, ইসরায়েলি সামরিক ড্রোনগুলো এখনও (রাফাহ) জেলার এই অংশে চক্কর দিচ্ছে। আর এর লক্ষ্য শুধুমাত্র ফিলিস্তিনিদের এটিই মনে করিয়ে দেওয়া যে, আনন্দ ও উদযাপনের এমন দিনেও তাদের জন্য নিরাপত্তা বলে কিছু নেই।

তবুও, এই নিরাপত্তাহীনতাকে পেছনে ঠেলেই ফিলিস্তিনিরা আজ রাফাহতে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন। এছাড়া নিজেদের চারপাশে ঘটে যাওয়া ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ, দুঃখ, আর্তনাদ ও শোকের মধ্যেও ফিলিস্তিনিরা একত্রিত হচ্ছেন (এবং) একে অপরকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন।

এর মধ্যে একটি হামলা চালানো হয় নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে। মারাত্মক এই হামলায় অন্তত ১৪ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। নিহতদের চারজনই শিশু।

যুক্তরাষ্ট্র থেকেই ইধিকার মন্তব্যের জবাব দিলেন কোর্টনি

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: বুধবার, ১০ এপ্রিল, ২০২৪, ১২:৪০ অপরাহ্ণ
যুক্তরাষ্ট্র থেকেই ইধিকার মন্তব্যের জবাব দিলেন কোর্টনি

আসন্ন ঈদে মুক্তি পাচ্ছে শাকিব খানের নতুন সিনেমা ‘রাজকুমার’। প্রথমবারের মতো মার্কিন অভিনেত্রী কোর্টনি কফির সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন ঢালিউডের বর্তমান সময়ের শীর্ষ এই নায়ক। 

সিনেমা মুক্তির আগেই শাকিব খানের নতুন সিনেমার জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন ‘প্রিয়তমা’ খ্যাত অভিনেত্রী ইধিকা পাল। যার সঙ্গেই গেল ঈদে প্রেক্ষাগৃহ মাতিয়েছেন শাকিব। গত সোমবার নিজের ফেসবুক পেজে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে ‘রাজকুমার’ সিনেমার প্রতি শুভেচ্ছাবার্তা প্রকাশ করেন এই অভিনেত্রী।

বিষয়টি নজরে আসার পর ইধিকার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন রাজকুমার সিনেমার নায়িকা কোর্টনি কফি। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অবস্থান করছেন তিনি। সেখান থেকেই ইধিকার প্রতি নিজের বার্তা প্রকাশ করেছেন এই অভিনেত্রী।

ইধিকার শুভকামনা বার্তার প্রত্যুত্তরে কোর্টনি তার ফেসবুক লিখেছেন, ইধিকা পালের মহানুভবতার জন্য তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। ‘রাজকুমার’ ও আমাদের প্রতি শুভকামনা জানিয়ে চমৎকার পোস্টটি দেখে ভীষণ মুগ্ধ হয়েছি। ইধিকার বিষয়টি আমাকে মনে করিয়ে দিয়েছে, প্রথম দিন তার সঙ্গে দেখা হওয়ার পর আমার প্রতি উদারতা ও অনুগ্রহের কথা।
ইধিকার প্রশংসা করে অভিনেত্রী আরও লিখেছেন, আমরা জানি, ‘প্রিয়তমা’র নায়িকা হিসেবে তিনি ইতোমধ্যে বাংলাদেশে ভালোই প্রভাব বিস্তার করেছেন, যা আমি কেবল আশা করতে পারি। কারণ, অনুসারী হিসেবে তিনি একটা সুন্দর পথ তৈরি করে দিয়েছেন।

কোর্টনি লেখেন, ‘রাজকুমার’ সিনেমাটি তৈরি হতে যা যা করণীয়, সবই ‘প্রিয়তমা’ টিম আন্তরিকভাবে করেছে। আমি ইধিকা পাল এবং সব কলাকুশলীকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আমি জানি, আমি তোমার ‘প্রিয়তমা’র বিকল্প হতে পরব না, তবে আমি আশা করছি, আমার আগে করা সব কাজকে ভালোভাবেই ছাপিয়ে যেতে পারব।’

‘রাজকুমার’ সিনেমার শুটিং শুরুর আগে ঢাকায় এসেছিলেন ইধিকা পাল। দেখা করে গেছেন শাকিব খান ও কোর্টনি কফির সঙ্গে। সেসময় আড্ডার পাশাপাশি ফটোসেশনেও অংশ নেন তারা।

এর আগে ইধিকার তার ফেসবুকে লেখেন, ‘আমি আপনাদের সকলের প্রিয়তমা হিসেবে ছবি মুক্তির ঠিক আগে, রাজকুমার ছবির সমস্ত টিম, প্রযোজক আরশাদ আদনান, পরিচালক হিমেল আশরাফ ভাই ও অবশ্যই বাংলাদেশের সকলের হৃদয়ের রাজকুমার শাকিব খানকে জানাই অসংখ্য অভিনন্দন ও শুভ কামনা। তর্ক বিতর্ক, ভালো এবং আরো ভালোর মাঝের ব্যবধানটুকু সরিয়ে নিলে যা মানুষকে প্রতিদিন বাঁচিয়ে রাখে, সেটা প্রত্যাশা।

প্রত্যাশা এক অমলিন অনুভূতি, সেই অনুভূতির ওপর ভিত্তি করেই এই ছবির জয়জয়কার চলুক; সকলের মনের কাছাকাছি থাক রাজকুমার। আপনাদের প্রিয়তমা হয়ে আমি এই প্রত্যাশাই রাখলাম। ভিনদেশি ইধিকাকে প্রিয়তমা করে তুলে যে ভালোবাসা আপামর বাংলাদেশ আমায় দিয়েছে তা আমার চিরকালের সম্পদ, তার পেছনে যে মানুষ গুলোর অবদান সব থেকে বেশি, সেই সুপারস্টার শাকিব খান, আরশাদ আদনান এবং হিমেল আশরাফ ভাইয়ের প্রতি আমি চিরকৃতজ্ঞ। সকলকে বলছি, হলে গিয়ে রাজকুমার দেখুন। সকলকে পবিত্র ঈদের আগাম শুভেচ্ছা, শুভ হোক।’

"> ">
বীরগঞ্জে ১০৫ টি পরিবারে ঈদ উপলক্ষে মাংস বিতরণ গাজায় ধ্বংসপ্রাপ্ত মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় ফিলিস্তিনিদের যুক্তরাষ্ট্র থেকেই ইধিকার মন্তব্যের জবাব দিলেন কোর্টনি বিছনাকন্দি ইউপির সাধারণ নির্বাচন স্থগিত যাত্রী সংকটে ধুঁকছে গাবতলী সৌদির সঙ্গে মিল রেখে ঝিনাইদহে ঈদুল ফিতরের জামাত ঈদের নামাজের জন্য প্রস্তুত জাতীয় ঈদগাহ ঈদের একদিন আগেই ফাঁকা উত্তরের মহাসড়ক আমিরাতে ঈদ উদযাপন করছেন প্রবাসীরা ‘আজ ঈদ হলে বাড়ি যাওয়া হতো না’ চাঁদপুরে অর্ধশতাধিক গ্রামে ঈদুল ফিতর উদযাপন পদ্মা সেতুতে টোল আদায়ে নতুন রেকর্ড মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গে মিল রেখে দিনাজপুরে ঈদ উদযাপন ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা, ঈদযাত্রায় নেই চিরচেনা যানজট প্রস্তুত হচ্ছে এশিয়ার সবচেয়ে বড় ঈদগাহ আজ ঈদ করবেন লক্ষ্মীপুরের সহস্রাধিক মানুষ ধ্বংস-মৃত্যু-বেদনার মধ্যেই ফিলিস্তিনে ঈদ, হামাসের শুভেচ্ছা নরসিংদীর ৩ উপজেলায় চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে পারেন এমপি-মন্ত্রীর আত্মীয়রা নরসিংদী ঈদের কেনাকাটা করতে যাওয়ার পথে প্রাণ গেল কিশোরীর জয়পুরহাটের শ্রমিকদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ  কাহারোলে নব জীবন নারী উন্নয়ন সংস্থার ঈদ উপহার বিতরণ আজ বান্দরবান যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পাকিস্তানে ২০ জনকে হত্যার অভিযোগ, যা বলল ভারত শবে কদর রজনীতে দেশ ও মুসলিম জাহানের কল্যাণ কামনা প্রধানমন্ত্রীর বগুড়ায় বাস-প্রাইভেটকার সংঘর্ষে নিহত ৩ ঈদে ট্রেনে যাত্রীদের কোনো ভোগান্তি নেই: রেলমন্ত্রী ঈদে নগরবাসীর জন্য ডিএমপির ১৪ পরামর্শ আজ পবিত্র লাইলাতুল কদর প্রেমিককে বাড়িতে রাখতে স্বামীর কাছে আবদার স্ত্রীর, শেষে যা ঘটল একমাত্র ছেলের কাছে ঠাঁই হয়নি হামিদ মাস্টারের